নিউজ ডেস্ক: হাসপাতালে রাখা নারীদের মরদেহের সঙ্গে সঙ্গমের কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে ডোম মুন্না ভক্ত। শুক্রবার (২০ নভেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদ ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির উপ-পরিদর্শক নিউটন কুমার দত্ত আসামিকে আদালতে হাজির করে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন করেন। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক জবানবন্দি রেকর্ড করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে জতন কুমার লালের সহযোগী হিসেবে কাজ করতো মুন্না। সে দুই-তিন বছর ধরে মর্গে থাকা মৃত নারীদের মরদেহের সঙ্গে সঙ্গম করে আসছিলো। এমন অভিযোগ পেয়ে অভিযান চালিয়ে মুন্নাকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) শেরেবাংলা নগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক জেহাদ হোসেন। মুন্নার গ্রামের বাড়ি রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে। সে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গের পাশেই একটি কক্ষে থাকতো।